আসসালামু আলাইকুম । ফ্রি টিউন্স ২৪ ডট কম এর পক্ষ থেকে আমি ইমরান হোসেন আপনাদের স্বাগতম জানাচ্ছি । আশা করি ভালো আছেন ! আজ আপনাদের জন্য Redmi Note 7 pro মোবাইলের রিভিউ করছি । Redmi Note 7 pro ফোন টি কেনার ১ মাস ব্যবহারের পর এই মোবাইলের ভালো মন্দ নিয়ে কথা বলতে আসছি আপনাদের মাঝে । তো চলুন শুরু করি ।

This is not a surprise Redmi Note 7 pro. আমরা সবাই জানতাম যে সাউমি কোঃ Redmi Note 7 বাজারে লন্জ করার পর আসবে Redmi Note 7 pro. অনেকেই বলছে এই ফোনটা বাজেট কিং । তবে এটা মিথ্যা নয় আসলেই এটা বাজেট কিং মোবাইল । এই ফোনে আছে Qualcomm SDM675 Snapdragon 675  (11nm)  প্রসেসর । এবং এই ফোনের পিছনে আছে ডুয়েল ক্যামেরা একটির মেগাপিক্সেল ৪৮ এবং অন্যটির ৫ মেগাপিক্সেল ।এর সাথে সামনে আছে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ।মোবাইলে দিয়েছে আমেজিং ডিজাইন যা দেখতে খুবই সুন্দর লাগে । এই ফোনের র‌্যাম ৪ জিবি ফোন স্টোরেজ ৬৪ জিবি ও ৬ জিবি ১২৮ জিবি । সাথে থাকছে ৪০০০ এমএএইচ ব্যাটারি । এই সব কিছু মিলিয়ে একটা বাজেট কিং ফোন ।

এতো কিছু মিলিয়ে এই বাজেটের মধ্যে বাজারে এই ফোনটি সর্বোত্তম । এই ফোনটি আমি নিজে ১ মাস ব্যবহারের পর আপনাদের সাথে আলোচনা করতে আসছি । তো আমরা আজকে দেখবো এই ফোনের Real Life কেমন । আর আপনার এই Redmi Note 7 pro ফোনটি কেনা উচিৎ হবে কিনা এটা নিয়ে আলোচনা করবো ।

খুবই সুন্দর দেখতে এই ফোনটির কালার পাওয়া যাচ্ছে ৩ টি ।

  • Nebula Red,
  • Neptune Blue,
  • Space Black
Redmi Note 7 pro

ডিজাইনের মধ্যে Redmi Note 7 এবং Redmi Note 7 pro এর মধ্যে তেমন কোন ডিফারেন্স নেই বললেই চলে । শুধু ক্যামেরার দিক দিয়ে এবং ওজনের দিক দিয়ে মাত্র ১গ্রাম ভারি Redmi Note 7 pro । Redmi Note 7 তে, যে ৪৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ব্যবহার করেছেন সাউমি কোঃ । সেখানে আমার একটু সন্দেহ আছে । কেননা ৪৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা মতো মনে হয় না । কিন্তু Redmi Note 7 pro তে ৪৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ব্যবহার করায় এই ক্যামেরা দিয়ে ছবি তুললে মনে হয় এটা ৪৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার ছবি ।

Redmi Note 7 pro অবশ্যই আকর্ষনিয় কেননা সামনে পিছনে ২ জায়গাতেই ব্যবহার করা হয়েছে গ্লাস ।ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে Corning Gorilla Glass 5 যার কারনে ফোনটি Extra লেয়ারে প্রটেকশান পাচ্ছে । তবে মাঝখানের রিমটি প্লাসটিকের তৈরি । Redmi Note 7 pro তে ব্যবহার করা হয়েছে ৬.৩ ইঞ্চি ডিসপ্লে যা দেখতে ব্রাইটফুল এবং কালারফুল, এবং খুবই সুন্দর । ডিসপ্লের উপরে দেওয়া হয়েছে ছোট্ট Water dropnos যাকে Redmi বলছে Water dropnos Display ।পিছনের Fingerprint টি সুপার ফাস্ট । সেই সাথে ফেস আনলোক এর গতি নিয়ে আমি খুবই সন্তুষ্ট ।পেছনের ক্যামেরার লেঞ্চ টা পাহাড় সমান উচু এজন্য টেবিলের উপরে রাখলে সামান্য বাপ্ম লক্ষ করা যায় । লম্বা সেটের ডুয়েল ক্যামেরার নিচেই আছে ফ্লাস লাইট । এছাড়া ফোনটি হাতে নিয়ে খুবই ভালো ফিল হয় । উপরের দিকে আছে ৩.৫mm অডিও জ্যাক । এবং নিচের দিকে আছে স্পিকার গ্রিল এবং ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট । ফোনের ডান দিকে আছে লক বাটন ও ভলিয়াম বাটন । আর বামপাশে আশে ডুয়েল ন্যানো সিম স্লট যেখানে ২টা সিম এর একটা সিম কার্ড বাদ দিলে ২৫৬ জিবি মেমোরি কার্ড ব্যবহার করা যাবে । এই ফোনের টপ আপ লাইন প্রসেস নিয়ে কোন প্রকার কমপ্লাইন নাই ।

আমার হাতে থাকা ফোনটির র‌্যাম ৪জিবি ফোন স্টোরেজ ৬৪জিবি । মোবাইলে পাবজি গেমে পাবজি লঞ্চ করলে হাই গ্রাফিক্স সাজস্টে করে । এবং হাই গ্রাফিক্স এ অকেশনাল ২, ১টা স্টাটার ও ফ্রেমডপ ছাড়া ভালো পারফমেন্স পেয়েছি । আর মিডিয়াম গ্রাফিক্সে পাবজি একদম স্মুথলী চলে । কোন প্রকার সমস্যা হয় না । এছাড়া এসফাল নাইন ও খেলেছি এতে কোন রকম সমস্যা ছাড়া । ফোনটিতে আছে ৪০০০ এমএএইচ এর ব্যাটারি যা দিয়ে লাইট ব্যবহারে মানে ডিসপ্লে সাড়াদিন অন অবস্থায় রেখে ব্যবহার করলে দিনটা আরমছে পার হয়ে যাওয়ার পরেও ২০%-৩০% চার্জ থেকে যায় । ফোনটিতে আছে কুইক চার্জ ৪ সাপোর্টেড ।মোবাইল বক্সে থাকা চার্জার দিয়ে মোবাইলটি চার্জ দিতে ২ ঘন্টার মতো সময় নিচ্ছে । আর চার্জে দেওয়ার সময় নিচের দিকে চার্জার পোর্টের উপরে একটি LED এন্টিগেটর লাইট আপ ডাউন করে । অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে দেওয়া হয়েছে এন্ড্রয়েড পাই-৯ ভার্সন । যার উপরে বিরক্তিকর হয়ে দারিয়েছে MIUI-10 ।

Camera:

এবার আসছি ক্যামেরা সেকশানে । পিছনে আছে Sony IMX5AD6 Sensor যুক্ত ৪৮ মেগাপিক্সেল এর প্রাইমেরি সুটার । এবং ৫ মেগাপিক্সেল এর ডিপ সেনসর । এই ফোনটি বাজারে সব চেয়ে কম দামি ফোন যাতে ৪৮ মেগাপিক্সেল এর ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে । পিছনের ক্যামেরা দিয়ে ছবি তুললে ডিফল্ট ভাবে ২০ মেগাপিক্সেল এর ছবি তুলে । এবং ২০ মেগাপিক্সেলের ছবি দেখতে খুবই সুন্দর ও কালারফুল ।পর্যাপ্ত পরিমানে ডিটেইল্স এবং ডায়নামিক রেন্স ধরে রাখতে সক্ষম হয় এই ক্যামেরাটি ।৪৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরার অপশনটি ম্যানুয়ালি সিলেক্ট করে নিতে হয় ।

পিক্সেবিনিং টেকনোলোজির মাধ্যেমে এই ক্যামেরার তোলা ছবি গুলোতে ডিটেইল একটু বেশি লক্ষ করা যায় এবং ছবির রেজুলেশন বেশি হওয়ায় অক্ষত অবস্থায় জুম করতে পারবেন অনেক বেশি । তবে ৪৮ মেগাপিক্সেলের ছবি তুলার সময় প্রসেস হতে অনেক সময় নেয় । হয়তো বড রেজুলেশনকে সঠিকভাবে প্রসেস করার জন্যই এই ডিলে । তবে দেরি হলেও ছবিটা দেখার পরে মনটা ভরে যায় বা পুষিয়ে যায় । ৪৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরায় থেকে বের হলে আবারও ২০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরায় ফেরত যায় ।

ক্যামেরা এপে pro mode, Panaroma mode, night mode, Portrait mode সহ আরও অনেক Mode আছে । তবে পিছনের Portrait সর্টের ছবি গুলো আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে । ডিফল্ট ক্যামেরায় কম আলোতে ছবি ততটা ভালো লাগে না । তবে Night Mode রাতের ছবি গুলো বেশ মনোমুগ্ধকর । পেছনের ক্যামেরা দিয়ে সর্বচ্চো 4k তে 120fps ভিডিও রেকর্ড করা যাবে । এছাড়া 1080 তে 30/60 fps ভিডিও রেকর্ড় করা যাবে । এই ফোনের ভিডিও নিয়ে আমি সন্তুষ্ট । সামনের ক্যামেরা ১৩ মেগাপিক্সেলের ড্রপনস স্থাপন করে দেওয়ায় এই সেলফি সুটার দিয়ে তোলা ছবি দেখতে খুবই সুন্দর লেগেছে । আর সামনের Portrait mode ছবি গুলো খুবই ভালো ।

সব মিলিয়ে এই ফোনটি এই প্রাইজ রেটের মধ্যে আমার কাছে সব থেকে পছন্দ হয়েছে । ফোনটির দাম যদিও বাংলাদেশে এখন বেশি । এখন কিনলে ১৯,৫০০ টাকার মতো পরবে । কিন্তু কিছুদিন পরে যদি কিনেন তবে হয় তো কম হতে পারে ।

Portrait Mode Pic:

Emran & Milton

সব শেষে আমার কিছু কথাঃ

আমি যেটা প্রথমেই বলতে চেয়েছিলাম সেটা হচ্ছে, এই ফোনটার ৩টা কালার Nebula Red, Neptune Blue, Space Black ।এর মধ্যে থেকে আপনি যদি Space Black ফোনটি কিনেন তবে এর একটা Simple Problem তা হচ্ছে এটাতে প্রচুর পরিমানে হাতের বা আঙ্গুলের ছাপ পরে ।এজন্য ব্যবহার করার সময় অনেক অপরিষ্কার মনে হয় । এর জন্য মোবাইলের সাথে থাকা ব্যাক কভার ব্যবহার করতে পারেন । তবে আমি রিকমেন্ড করবো কালোটা না কেনাই ভালো । এছাড়া যে দুটি মোবাইল আছে তার থেকে যে কোন একটা নিন । আর অন্য ফোন গুলোতে কালার ভিন্ন হওয়ায় আঙ্গুলের ছাপ পরলেও বোঝা যায় না ।

Redmi note 7 Pro Price in Bangladesh.

Redmi Note 7 pro তে যেটা আমার কাছে সব চেয়ে বেশি খারাপ লেগেছে তা হচ্ছে বিজ্ঞাপন । ফোনে ডাটা কানেকশন করলেই ডিসপ্লের উপরে বিজ্ঞাপন চলে আসে ।শুধু Redmi Note 7 pro তে নয় সমস্ত সাউমি মোবাইলে এই সমস্যাটা । যদিও এই বিজ্ঞাপনটি বন্ধ করা যায় । তারপরে ও বলবো সাউমি কোঃ কে ভাই আপনাদের মনে যে বাজেটে মোবাইল বিক্রিয় করেন তাতে মনে হয় আপনাদের হয় না । যার ফলে বিজ্ঞাপন দিতে হয় । তো এই ছিলো আজকের টিউন্স সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন । সেই কামনায় শেষ করছি । “আল্লাহ্ হাফেজ”

ধন্যবাদ  সবাইকে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here