ইউটিউব কেনো আমাদের টাকা দেয় বা কিভাবে পাবো ?

0
103

হ্যালো ভিউয়ার্স । আসসালামু আলাইকুম । ফ্রি টিউন্স ২৪ ডট কম এর পক্ষ থেকে আমি মোঃ ইমরান হোসেন আপনাদেরকে স্বাগতম জানাচ্ছি । আজকে আমরা আলোচনা করবো কিভাবে ইউটিউব কাজ করে, কিভাবে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করতে হয় বা কেনই বা ইউটিউব থেকে টাকা দিবে । যারা ইউটিউব কে প্রফেশনালি নিয়েছেন তাদের আল্টিমেট টার্গেট কিন্তু একটাই সেটা হচ্ছে ইউটিউব থেকে আয় করা । কিন্তু অনেকেই জানেনা যে ইউটিউব কেন টাকা দেয় বা কিভাবে টাকা দিবে ! আর এর জন্য কি কি প্রসেস ফলো করতে হবে বা কিভাবে এগোতে হবে । এই জিনিসগুলো স্টেপ বাই স্টেপ আলোচনা করবো । আজকে আমরা জানবো যে ইউটিউব কেন আমাদের টাকা দিবে বা কিভাবে ইউটিউব থেকে আমাদের আয় টা আসে । এই জিনিসগুলো আমরা বিস্তারিত জানার চেষ্টা করবো । তো চলুন শুরু করি ।

ইউটিউব থেকে ইনকাম করতে হলে কি কি আমাদের প্রয়োজন হবেঃ

প্রথমেই আমাদের একটি ইউটিউব চ্যানেল থাকতে হবে এবং কিছু ভিডিও থাকতে হবে এবং ভিডিও গুলো অবশ্যই নিজের হতে হবে কপি ভিডিও হলে হবে না । তারপর ঐ ভিডিওগুলো গুগল হোস্টেড অ্যাডসেন্স দ্বারা মনিটাইজ করতে হবে । তো আমরা যখন আমাদের কনটেন্টগুলো গুগল অ্যাডসেন্স দ্বারা মনিটাইজ করবো, তখন গুগল এডসেন্স থেকে আমাদের ঐ কনটেন্ট অর্থাৎ ঐ ভিডিও গুলোতে বিভিন্ন এড শো হতে থাকবে এবং এর বিনিময় ইউটিউব আমাদের কিছু পারসেন্ট (%) রেভিনিউ শেয়ার করবে । তো এভাবে মূলত ইউটিউব থেকে আর্নিংটা হয় ।

এটা যদি একটু বিস্তারিতভাবে বোঝাই তাহলে দেখুনঃ ধরুন আমার একটা ইউটিউব চ্যানেল আছে । প্রথমে আমি যখন এই চ্যানেল তৈরি করবো, তৈরি করার পরে এই চ্যানেলে অনেকগুলো ভিডিও আপলোড করবো । ধরুন ২০-৩০ টি ভিডিও আমার চ্যানেলে আপলোড করেছি । এখন আমি চাচ্ছি এই ভিডিও গুলো দিয়ে টাকা ইনকাম করবো । তো এর এজন্য প্রয়োজন হবে আমার এই কনটেন্ট অর্থাৎ আমার এই ভিডিওগুলো কে গুগল হোস্টেড অ্যাডসেন্স দ্বারা মনিটাইজ করা । তো তার আগে আমাদের যেটা করতে হবে সেটা হচ্ছে আমাদের এই ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে গুগল হোস্টেড এডসেন্সে এপ্লাই করতে হবে । এর এডসেন্স যদি আমাদের অ্যাপ্রুভ হয়ে যায় । তারপরে আমরা আমাদের ভিডিও গুলো মনিটাইজ করতে পারবো, তাছাড়া কিন্তু আমরা আমাদের ভিডিও ইচ্ছে করলেই মনিটাইজ করতে পারবো না । অ্যাডসেন্স যদি অ্যাপ্রুভ হয়ে যায় তারপর আমরা ভিডিও মনিটাইজ করতে পারবো । তারপরই কেবল আমাদের ভিডিওতে এড শো হতে থাকবে ।

প্রশ্ন আসতে পারে এড গুলো কোথা থেকে আসবে ?

ধরুন, আমার যে ইউটিউব চ্যানেলটা আছে এবং ঐ ভিডিও এগুলোর জন্য আমি এখন আমার ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে আমি গুগল এডসেন্সে এপ্লাই করছি । করছি তো তার আগে বলা আবশ্যক যে গুগল এডসেন্সে এপ্লাই করতে হলে অনেকগুলো রিকোয়ারমেন্টস আছে এই রিকোয়েস্ট গুলো ফুলফিল যদি থাকে আপনার চ্যানেলে তবে আপনি এপ্লাই করতে পারবেন । যদিও বা আগে এই নিয়মগুলো ছিল না  । আগে যে কেউ একটা চ্যানেল তৈরি করে সঙ্গে সঙ্গে এপ্লাই করতে পারতো । কিন্তু এখন ইউটিউব অনেক নিয়ম চেঞ্জ করেছে । যার ফলে এখন অনেকগুলো নতুন নিয়ম আছে, এই নিয়ম গুলো ফলো করে তারপর এপ্লাই করতে হবে ।

ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজ অন করার প্রধান শর্তঃ

আপনি প্রথমে ইউটিউব চ্যানেল ক্রিয়েট করবেন । চ্যানেল ক্রিয়েট করার পরে আপনার চ্যানেলে বিভিন্ন ভিডিও আপলোড করতে থাকবেন । অবশ্যই সেই ভিডিও গুলো আপনার নিজের হতে হবে । এরপর যখন আপনার ভিডিওগুলো মানুষ দেখতে শুরু করবে, এভাবে যখন আপনার সবগুলো ভিডিও মিলে ৪,০০০ ঘন্টা বা তার বেশি ওয়াচ টাইম । অর্থাৎ ওয়াচ টাইম যখন ৪,০০০ ঘন্টার বেশি হবে এবং আপনার চ্যানেলের কমপক্ষে ১ হাজার সাবস্ক্রাইবার হবে তারপরেই আপনি গুগল এডসেন্সের জন্য এপ্লাই করতে পারবেন । আর এসব কিছু এক বছরের মধ্যে হতে হবে অর্থাৎ এক বছরের মধ্যে ৪ হাজার ঘন্টা ওয়াচ টাইম এবং ১ হাজার সাবস্ক্রাইবার লাগবে ।

তো এটা নিয়ে অনেকে আবার কনফিউজ যে, আমি ৫ বছর আগে ইউটিউব চ্যানেল ক্রিয়েট করেছি বা ১০ বছর আগে ইউটিউব চ্যানেল ক্রিয়েট করেছি । তো আমি কি এখন এডসেন্সের জন্য এপ্লাই করতে পারবো না ? হ্যাঁ অবশ্যই এপ্লাই করতে পারবেন । আপনি ৫ বছর আগে করেন বা ২ বছর আগে করেন সেটা ব্যাপার না । আপনি যেদিন এডসেন্স এর জন্য এপ্লাই করবেন সেদিন থেকে ধরে পেছনের এক বছরের মধ্যে ৪ হাজার ঘন্টা ওয়াচ টাইম এবং ১ হাজার সাবস্ক্রাইবার লাগবে । তার আগে যদি এপ্লাই করেন তবে কোন লাভ হবে না । আপনার যখন এই শর্তটা পূরন হবে তারপরে আপনার চ্যানেলটা গুগোল অ্যাডসেন্স এপ্রুভ করবে । তবে এর পরে অনেক কথা আছে । সেটা হচ্ছে যে আপনার ৪ হাজার ঘন্টা ওয়াচ টাইম এবং ১ হাজার সাবস্ক্রাইবার হয়েছে তারপরে আপনি এপ্লাই করেছেন । তার পরেও দেখছেন যে এডসেন্স এপ্রুভ হচ্ছে না, এরকম অনেক আছে । এখন বর্তমানে হাজার হাজার মানুষ এই কাজটা করছে কিন্তু অনেকেই এখনো পেন্ডিং অবস্থায় আছে । অনেকেই প্রশ্ন করেন যে কেন এমন হচ্ছে ? বা কি করবো ? আসলে এটা আমাদের বলার কিছু নাই বা এটা আমাদের উত্তর দেওয়ার মতো কোন ভাষা নাই । কারণ আমরা তো গুগলে জব করি না । আমরা এটা বলতেও পারবো না । বা অথরিটি আমরা না । আমি জাস্ট আপনাদের সিস্টেম গুলো জানাচ্ছি বাকিটা গুগলের হাতে । গুগল সব কিছু দেখবে সবকিছু পর্যালোচনা করবে । তারপরে যদি আপনার চ্যানেলের সব কিছু ঠিকঠাক থাকে তারপর গুগল অ্যাপ্রুভ করবে ।

আরেকটা বিষয় মাথায় রাখবেন সেটা হচ্ছে ইউটিউব প্রতিনিয়ত তাদের রুলস্ আপডেট করে অর্থাৎ চেঞ্জ করে । ভবিষ্যতে আবারও যদি কোন কিছু তাদের চেঞ্জ আসে বা রুলস্ চেন্জ করে, তাহলে সে ভাবে আপনাদের কাজ করতে হবে । বর্তমানে এখন যে নিয়ম আছে বা রুলস্ আছে সেটা আমি একটু আগেই আপনাদের জানিয়েছি ।

আমি আবার পুর্বের কথায় ফিরে যাচ্ছিঃ ধরে নিলাম আপনার গুগোল অ্যাডসেন্সে এপ্রুভ হয়েছে । গুগল এডসেন্স যখন আপনার চ্যানেলে এপ্রুভ হয়ে যাবে । এপ্রুভ হয়ে যাবে যাওয়ার পরে আপনি আপনার এই ভিডিওগুলো করতে পারবেন । এখন প্রশ্ন আসতে পারে যে আমার ভিডিওতে এড গুলো কোথা থেকে আসবে ?

আপনার ভিডিওগুলো যখন গুগল এডসেন্স দ্বারা মনিটাইজ করবেন, তখন গুগল এডসেন্স থেকে অটোমেটিকভাবে আপনার ভিডিওতে এড শো হতে থাকবে । তো এড গুলো গুগল এডসেন্স কোথায় পায় বা কিভাবে গুগল এডসেন্স থেকে আসে ? এটাও কিন্তু একটা প্রশ্ন হতে পারে বা প্রশ্ন আসতে পারে । তো উত্তর হচ্ছেঃ ধরুন আমার একটা কোম্পানী আছে বা কোন একটা কোম্পানির বিভিন্ন প্রোডাক্ট গুলোর প্রচার গুগল Adword এর মাধ্যমে এডসেন্সকে অ্যাড দিবে ।আর এই এড গুলো এডসেন্স আমাদের মত যারা পাবলিশার আছে বা যারা কনটেন্ট ক্রিয়েটর আছে তাদের ভিডিওতে বা কনটেন্ট এ এই এড গুলো প্রচার করবে । তো এর বিনিময়ে এই কোম্পানি থেকে গুগল যে পরিমাণ টাকাটা নিবে বা রেভিনিউ নিবে । সেএখান থেকে কিছু পার্সেন্ট(%) আমাদের মত যারা পাবলিসার আছে তাদের কাছে শেয়ার করবে । তো এটাই আসলে মেইন বিষয় এর বাইরে কিছু না । অনেকেই হয় তো মনে করেন যে ভিউ, সাবস্ক্রাইবার, লাইক এগুলোর জন্য গুগল পেমেন্ট করে বা এডসেন্স পেমেন্ট দেয় । বিষয়টা আসলে এরকম না । পেমেন্টটা করে আসলে আপনার ভিডিওতে যে এড শো হবে ঐ এড গুলোতে ক্লিক, ইমপ্রেশন এগুলোর ভিত্তিতে । তো তার মানে আবার এই না যে আপনি আপনার চ্যানেলের নিজের ভিডিওতে এড গুলো নিজেই বার বার ক্লিক করবেন, বার বার দেখবেন । এটা করা যাবে না । এটা করলে আপনার চ্যানেল ব্যান হয়ে যাবে ।তো চলুন দেখি ইউটিউবে কি কি টাইপের এড শো হতে পারে বা কি টাইপের এড শো হয় ? এই জিনিসগুলো আমরা একটু দেখে নেই ।

Youtube ad type
Youtube ad type img

ইউটিউবে কি কি টাইপের এড শো হয়ঃ

  • True View in-stream Ads
  • Overly in-video ads
  • True View in-display Ads
  • Display Ads

এই টাইপের অ্যাড গুলো আপনার ভিডিওতে শো হতে পারে । নিচে বিস্তারিত দেখুনঃ

True View in-stream Ads: True View in-stream Ads এটা কি ধরনের এড ? আমরা যখন ইউটিউবের কোন ভিডিও অপেন করি, অপেন করার সাথে সাথে একটি এড চালু হয় এটা কেটে দেওয়া যায় না । হয় তো ৫ সেকেন্ড, ৩ সেকেন্ড অথবা ৭ সেকেন্ড চলে এর পর আপনা আপনি চলে যায় । এটাকে আমরা None Skip ads অথবা True View in-stream Ads বলতে পারি ।

Overly in-video ads:– Overly in-video ads হচ্ছে, ইউটিবের ভিডিও প্লে করার পর ভিডিও এর নিচে যে এড শো করে । এটাকে Overly in-video ads বলে ।

True View in-display Ads: True View in-display Ads হচ্ছে, আমরা যখন ইউটিউবের কোন ভিডিও অপেন করি, অপেন করার কিছুক্ষন ভিডিও প্লে হওয়ার পর এড চালু হয় । এই এড কেটে দেওয়া যায় । হয় তো ৫ সেকেন্ড, ৩ সেকেন্ড অথবা ৭ সেকেন্ড চলে এর পর ‍Skip ad লেখা আসে । এটাকে বলে True View in-display Ads ।

Display Ads: Display Ads হচ্ছে, কোন ভিডিও প্লে করার সময় থেকে ভিডিও শেষ হওয়ার আগে পর্যন্ত ভিডিও এর ডান সাইডে একটি এড কিছুখন পরপর চেন্জ হয় । এই এডকে Display Ads ।

আরেকটি বিষয় সেটা হচ্ছে আমরা তো ইউটিউব থেকে আর্ন করলাম কিন্তু এই আয় বা আর্নিংটা আমরা হাতে পাবো কিভাবে ? এজন্য আমাদের যেটা করতে হবে । ঐ যে প্রথমে আমরা গুগল এডসেন্স একাউন্ট ক্রিয়েট করেছিলাম । সেই একাউন্টের মাধ্যমে আমরা টাকাটা হাতে পাবো । সেটা কিভাবে । ঐ গুগোল অ্যাডসেন্সে এ ব্যাংক একাউন্ট এড করতে হবে । এরপর প্রতি মাসে আমাদের একাউন্টে মিনিমাম যখন $১০০ ডলার হবে । তখন গুগোল অটোমেটিক আমাদের ব্যাংক একাউন্টে ডলার ট্রান্সফার করে দিবে । মিনিমাম কিন্তু $১০০ ডলার হতে হবে । $১০০ ডলারের যদি কম হয় তাহলে কিন্তু ডলার ট্রান্সফার করবে না । আপনাদের যদি দুই মাসে $১০০ ডলার হয়, তাহলে দুই মাস পরে ডলার ট্র্যান্সফার করবে । যদি তিন মাসে $১০০ ডলার হয় তবে তিন মাস পরে ডলার ট্রান্সফার করবে । আর এক মাসে যদি $১০০ ডলারের বেশি হয়ে যায়, তাহলে যত বেশি হবে পুরোটাই করবে । কিন্তু $১০০ ডলার কম হলে হলে পেমেন্ট করবে না । তো যাই হোক এখন আমরা এডসেন্স এ যে ব্যাংক একাউন্ট এড করবো, তার আগে একটা প্রসেস আছে । ব্যাংক একাউন্ট আমরা ইচ্ছে করলেই এড করতে পারব না । তার আগে অ্যাডসেন্সে পিন ভেরিফিকেশন করতে হবে । সেটা কিভাবে করবেন ? আপনারা যখন গুগল এডসেন্স একাউন্ট ক্রিয়েট করবেন তখন বিভিন্ন ইনফরমেশন গুলো দিতে হয় । যেমন, আপনার নাম, আপনার এড্রেস, তাছাড়া আরও কিছু ইনফরমেশন দিতে হয় । ঐ ইনফরমেশনগুলো ফলো করে গুগল আপনাকে একটা লেটার পাঠাবে । আর ঐ চিঠিতে একটা পিন কোড থাকবে এবং ঐ পিন দিয়ে আপনি আপনার গুগল এডসেন্স পিন ভেরিফিকেশন কমপ্লিট করতে পারবেন । আর হ্যাঁ বলতে ভুলে গিয়েছিলাম সেটা হচ্ছে, গুগল আপনাকে তখনই চিঠি পাঠাবে যখন আপনার এডসেন্স এ মিনিমাম $১০ ডলার জমা হবে । মিনিমাম যখন $১০ ডলার জমা হবে হবে তখন অটোমেটিক গুগোল থেকে চিঠি পাঠানো হবে আপনার দেওয়া ঠিকানায় । আর এই চিঠিটা আমাদের দেশের অনেকেই হাতে পান না এর একটাই কারণ সেটা হচ্ছে বিভিন্ন ইনফর্মেশন ভুল প্রোভাইড করা বা না জেনে উল্টাপাল্টা ইনফর্মেশন প্রোভাইড করা । সেজন্য সবাইকে বলবো ইনফরমেশনগুলো গুগোল চাইলে সবকিছু ঠিকঠাক মত করতে । আর হ্যাঁ চিঠিটা আসতে সর্বোচ্চ এক মাস সময় লাগে । আপনার যদি এক মাসের মধ্যে না পান তাহলে পোস্ট অফিসে খোঁজ নিয়ে দেখবেন ।

আশা করছি বিষয়গুলো আমাদের কাছে এখন ক্লিয়ার । আজ এ পর্যন্তই রাখছি । আর আমাদের অফিশিয়াল ফ্যান পেইজে লাইক দিন এবং গ্রুপে জয়েন করুন । সবাই ভালো থাকবেন । “আল্লাহ্ হাফেজ”

ধন্যবাদ সবাইকে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here